পায়ের গোড়ালি ফাটলে…

শীতকালে অনেকেরই পায়ের তলা বা গোড়ালি ফেটে যায়। এ জন্য দায়ী শুষ্ক আবহাওয়া যে কোনো শুষ্ক আবহাওয়ায় পায়ের ত্বকে আর্দ্রতার পরিমাণ একদম কমে আসে। তখন তৈরি হয় পায়ের গোড়ালি ফেটে যাওয়ার প্রবণতা। অতিরিক্ত গরম পানিতে গোসল, ধূলিবালি, তীব্র পানিশূন্যতা, দীর্ঘদিন ধরে যত্নের অভাব, অপরিচ্ছন্ন জুতা পরা, অতিরিক্ত পুষ্টির অভাবে পায়ের গোড়ালি ফেটে যেতে পারে।

দীর্ঘ বছর ধরে অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস বা বংশগতভাবে পায়ের তলা বা গোড়ালি ফেটে যেতে পারে। অল্প ফেটে গেছে এমন জায়গার চামড়া জোরে টেনে তোলা বা ছিঁড়ে দেওয়া। অতিরিক্ত অমসৃণ জুতা ব্যবহার করলেও পায়ের গোড়ালি ফেটে যায়। পা সার্বিকভাবে পরিষ্কার না করা, ভ্যাসলিন বা ময়েশ্চার ব্যবহারের পর তা সঠিকভাবে পরিষ্কার না করে আবার লোশন, ক্রিম বা ময়েশ্চার ব্যবহার করলেও ফাটে। ঠাণ্ডা লাগে বেশি, এমন ব্যক্তির সঠিকভাবে মোজা বা জুতা ব্যবহার না করায় পা ফেটে যেতে পারে। নিয়মিত পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থেকে, পায়ের গোড়ালি যেন লোশন বা ময়েশ্চার দিয়ে মসৃণ রাখা যায়- সেদিকে খেয়াল রাখুন।

স্বাভাবিক পানিতে গোসল করুন। খুব ঠাণ্ডা লাগলে, অতিরিক্ত গরম পানি পায়ের গোড়ালিতে ঢালবেন না। অপরিচ্ছন্ন নোংরা জুতা ব্যবহার করবেন না। যাদের পা খুব বেশি ঘেমে জুতা ভিজে যায়, তারা পায়ের প্রতি যতœশীল হোন। উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখুন। শীতকাল পার হয়ে গেলেও পায়ের যত্ন নিন। পায়ের জুতা নিয়মিত রোদে দিন। অ্যালার্জির কোনো সমস্যা থাকলে, পায়ের প্রতি বিশেষ যতœশীল হোন। শাকসবজি, ফলমূল দেহের জন্য ভীষণ উপকারী।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button