আবাসিক হোটেলে নিয়ে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তন, রিমান্ডে স্ত্রী

স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় গ্রেপ্তার স্ত্রী ফাতেমা আক্তার সুমার দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়া এ আদেশ দেন।

এর আগে মামলাটি তদন্তের স্বার্থে তার সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করেন শাহবাহ থানার উপপরিদর্শক অমোল কৃষ্ণ দে। এ ছাড়া আদালতে আজ আসামির আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি নিয়ে বিচারক ফাতেমার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রিমান্ড আবেদনে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, ভুক্তভোগী সামিউল স্টিলের প্লেনসিটের দোকানে কাজ করেন। তিনি তার আয়ের টাকা স্ত্রী ফাতেমার কাছে জমা রাখতেন। গত ৯ নভেম্বর সামিউল কেরানীগঞ্জের বাসা থেকে কাজের উদ্দেশে বের হলে স্ত্রী ফাতেমা তাকে ফোনে জানান, তিনি বঙ্গবাজার থেকে কেনাকাটা করে পীর ইয়ামেনি মার্কেটের সামনে যাবেন। সেখানে সামিউলকে তার জমানো টাকা দেবেন। এরপর সামিউল সেই টাকা নেওয়ার জন্য পীর ইয়ামেনি মার্কেটের সামনে যান। রাস্তায় বসে পাঁচ লাখ টাকা দেওয়া ঠিক হবে না জানিয়ে সামিউলকে পীর ইয়ামেনি মার্কেটের আবাসিক হোটেলে নিয়ে যান ফাতেমা। সেখানে চেতনানাশক স্প্রে দিয়ে অজ্ঞান করে সামিউলের পুরুষাঙ্গের মাথা কেটে ফেলেন। সামিউলকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে পুরুষাঙ্গের কাটা অংশ দেখিয়ে ফাতেমা বলেন, ‘বিয়ে করবি, তোর বিয়ের স্বাদ মিটিয়ে দিয়েছি।’

সামিউলকে বিষয়টি গোপন রাখতে হুমকি দিয়ে ফাতেমা অজ্ঞাত দুই-তিন সহযোগীর মাধ্যমে তাকে নিয়ে হাসপাতালে পাঠান।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button