ভয় বাড়াচ্ছে করোনার নতুন ধরন

যুক্তরাজ্যে প্রাণঘাতী নতুন করোনা ভাইরাসের আরেকটি নতুন প্রকরণ শনাক্ত হয়েছে যা মূল রূপটির চেয়ে আরও দ্রুত সংক্রমণ ঘটাতে সক্ষম। এছাড়া নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্ক ও অস্ট্রেলিয়ায়ও নতুন ধরনটির সন্ধান মিলেছে। ফলে এ নিয়ে ভয় বাড়ছে।

তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটা দ্রুত ছড়ালেও ততটা প্রাণঘাতী নয়। যুক্তরাজ্যে প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ক্রিস উয়িটি জানিয়েছেন, নতুন প্রকরণের করোনা ভাইরাসটি যেন মৃত্যুর হার আরও বৃদ্ধির কারণ হতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে জরুরি ভিত্তিতে কাজ শুরু করা হয়েছে।

তিনি বলেছেন, ‘গবেষণায় প্রাপ্ত প্রাথমিক তথ্য ও দক্ষিণপূর্বাঞ্চলে দ্রুত বাড়তে থাকা ঘটনার হারের কারণে আমরা ভাবছি, নতুন ধরনটি আরও দ্রুত ছড়াতে পারে।” বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বিবিসিকে বলেছে, এ বিষয়ে তারা যুক্তরাজ্যের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছে। যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন রূপের সন্ধান মেলার পর সে দেশের ফ্লাইট বন্ধ ঘোষণা করেছে নেদারল্যান্ডস।

রবিবার এক বার্তায় ডাচ সরকার জানিয়েছে, ১ জানুয়ারি পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে। ইউরোপের মধ্যে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হলো যুক্তরাজ্য। এরই মধ্যে দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ২০ লাখের বেশি মানুষ, মারা গেছে অন্তত ৬৭ হাজার জন। করোনার সংক্রমণ রোধে যুক্তরাজ্যজুড়ে চলছে লকডাউন। লন্ডনসহ দেশের এক-তৃতীয়াংশ অঞ্চলজুড়ে শনিবার এই লকডাউন কার্যকর হয়েছে।

৩১ ডিসেম্বর এই লকডাউনের বিষয়টি আবার পর্যালোচনা করা হবে। এ লকডাউন কয়েক মাস ধরে জারি থাকতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক।

তবে যুক্তরাজ্যে নতুন করে এমন কড়াকড়ি আরোপ করার সিদ্ধান্তে উপহাস করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি পরিষ্কার করে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র এমন পদক্ষেপ নেবে না। কারণ, সমস্যার চেয়ে প্রতিকার হতে পারে ভয়াবহ। বিবিসি।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button