শিক্ষক-শ্রমিকদের লাঠিপেটা করে উঠিয়ে দিলো পুলিশ

শ্রমিকদের সম্মানজনক ক্ষতিপূরণ দেওয়াসহ কয়েকটি দাবিতে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষক ও শ্রমিকদের উঠিয়ে দিয়েছে পুলিশ। আজ সোমবার ভোররাত সাড়ে তিনটা থেকে চারটার দিকে তাদের উঠিয়ে দেওয়া হয়। এ সময় ঘুমন্ত শিক্ষক ও শ্রমিকদের লাঠিপেটা করা হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কামাল উদ্দীন মুন্সী বলেন, ‘কর্তৃপক্ষের নির্দেশে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে আন্দোলনরত ব্যক্তিদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে এ ঘটনায় কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।’

এর আগে, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গত ২২ দিন ধরে আন্দোলন করে আসছিল বাংলাদেশ স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতি। তারা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসাকে জাতীয়করণের দাবিতে এই আন্দোলন করে আসছিল।

আন্দোলনকারী শিক্ষকদের একজন কাজী মোখলেছুর রহমান জানান,, রাতে প্রেসক্লাবের সামনে আন্দোলনস্থলে তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। হঠাৎ সেখানে পুলিশ এসে তাদের গায়ে পানি দেওয়ার পর লাঠিপেটা করতে থাকে। কেন তাদের সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে, সে সম্পর্কে কোনো জবাব দেয়নি পুলিশ বলেও জানান তিনি। কামাল মৃধা নামের এক শ্রমিক বলেন, পুলিশ হঠাৎ ঘুমন্ত শ্রমিকদের ওপর হামলা চালায়। ঘুমন্ত শ্রমিকদের কাউকে কাউকে লাথিও মারে তারা।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর ঢাকার আশুলিয়ায় তাজরীন ফ্যাশনসে অগ্নিকাণ্ড ঘটে। সেই অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক শ্রমিক দগ্ধ হয়ে মারা যান। আহত হন আরও অনেকে। ফলে শ্রম আইনের ক্ষতিপূরণের ধারা সংশোধন করে আহত শ্রমিকদের সম্মানজনক ক্ষতিপূরণ দেওয়াসহ কয়েকটি দাবিতে অগ্নিকাণ্ডে আহত বেশ কিছু শ্রমিক ও তাদের পরিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আসছিলেন

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button