করোনা মোকাবিলায় আর্জেন্টিনায় ধনীদের ওপর বাড়তি কর

করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের ওপর বাড়তি কর আরোপ করেছে আর্জেন্টিনা। এই অর্থ করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় চিকিৎসা ও ত্রাণ সামগ্রীর জন্য ব্যবহার করা হবে। নতুন এই করের নাম দেওয়া হয়েছে ‘মিলিয়নিয়ার ট্যাক্স’। দেশটির সংসদে নতুন এই বিলের পক্ষে ৪২ ভোট পড়েছে। আর বিপক্ষে ২৬টি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, দেশটির যেসব ধনী ব্যক্তির আর্জেন্টাইন মুদ্রায় ২০০ মিলিয়ন পেসো সমপরিমাণ সম্পত্তি রয়েছে, তাদের ওপর এই নতুন কর বসছে। ফলে দেশটির করদাতাদের ০.৮ শতাংশ অর্থাৎ ১২ হাজারের মতো ব্যক্তি এর আওতায় পড়বে।

নতুন আইনের ফলে এসব ধনীর দেশের অভ্যন্তরে যে সম্পদ রয়েছে তার ৩.৫ শতাংশ এবং দেশের বাইরের সম্পদের ওপর ৫.২৫ শতাংশ কর দিতে হবে।

দেশটির মধ্য-বামপন্থী প্রেসিডেন্ট আলবার্তো ফার্নান্দেজ এই করের মাধ্যমে ৩শ’ মিলিয়ন পেসো’র তহবিল তৈরি করতে চান। এই তহবিলের ২০ শতাংশ করে ব্যবহার করা হবে চিকিৎসা ও ত্রাণ সামগ্রী ক্রয়ে, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের সহায়তায়, শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানে। আর ১৫ শতাংশ সামাজিক উন্নয়নে এবং বাকি ২৫ শতাংশ প্রাকৃতিক গ্যাস বিষয়ক কর্মকাণ্ডে।

আর্জেন্টিনায় ১৫ লাখের মতো করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় ৪০ হাজার। দেশটিতে এমনিতেই বেকারত্ব, দারিদ্র্য এবং সরকারের ঋণের হার অনেক বেশি। ২০১৮ সাল থেকে আর্জেন্টিনায় অর্থনৈতিক মন্দা চলছে। তার ওপর মহামারি মোকাবিলায় লকডাউন আরোপ করার পর মন্দা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে।

নতুন এই করের ব্যাপারে অনেকেই বিরোধিতা করেছেন। তারা বলছেন, এতে বৈদেশিক বিনিয়োগকারীরা নিরুৎসাহিত হবেন। এর আগে গত মাসে যখন বাড়তি করের প্রস্তাব তোলা হয়, তখন এই উদ্যোগের বিপক্ষে দেশটিতে বিক্ষোভ হয়েছে।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button