ক্ষমা চাইলেন ম্যারাডোনার মরদেহের সঙ্গে ছবি তোলা সেই ব্যক্তি

দিয়েগো ম্যারাডোনার মৃতদেহের সঙ্গে সেলফি তুলে বিশ্বব্যাপী সমালোচনার শিকার হন তিন সৎকারকর্মী। ছবিগুলো প্রথম প্রকাশ হয় গত বৃহস্পতিবার। এরপরই যারা ছবি তুলেছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকি দেন ম্যারাডোনার আইনজীবী মাতিয়াস মোরা।

ওই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর কর্তৃপক্ষ একজন কর্মীকে ছাঁটাই করেন। দিয়েগো মলিনা নামের সেই কর্মী এবার ক্ষমা চেয়েছেন ম্যারাডোনার ভক্ত-সমর্থকদের কাছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইকি মেইল’র প্রতিবেদনে বলা হয়, ম্যারাডোনার মৃতদেহের সঙ্গে দুটি ছবি তুলেছেন তিনজন। একটি ছবিতে দেখা যায়, কফিনে শোয়ানো ম্যারাডোনার মাথায় একটি হাত রেখে অন্য হাত দিয়ে থাম্বস আপ করছেন মলিনা। দ্বিতীয় ছবিতে আরও দুজন কর্মীকে একই ভঙ্গিতে দেখা যায়।

বুয়েন্স আয়ার্সের ম্যারাডোনার সৎকারের কাজ করেছে সেপেলিওস পিনিয়ের নামরে সংস্থা। এর ম্যানেজার ডিয়েগো পিকন দাবি করেন, ওই তিনজন কর্মী তাদের নয়। প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেসে ম্যারাডোনার মরদেহ নিয়ে যাওয়ার আগে ছবি তোলেন তারা।

পিকন বলেন, ‘আমার বাবার বয়স ৭৫, তিনি এখনও কাঁদছেন। আমি আমার ভাইও। আমরা বিধ্বস্ত। তিনি (মলিনা) আমাদের এখানকার কর্মী নয়। থার্ড পার্টির কেউ ছিলেন, কফিন ভারি হওয়ায় তাদের কাছে সহায়তা চাওয়া হয়েছিল।’

এই ঘটনাকে ম্যারাডোনার প্রতি চূড়ান্ত অসম্মানের বহিঃপ্রকাশ বলেছেন তার আইনজীবী মাতিয়াস মোরলা। তিনি বলেন, ‘আমার বন্ধুর শেষ স্মৃতি রক্ষা করতে আমি ততক্ষণ শান্ত হবো না, যতক্ষণ না এই ঘৃণ্য কাজ করা ব্যক্তির সমুচিত শাস্তি হচ্ছে।’

এমন আরো সংবাদ

Back to top button