জর্জিয়ায় শেষ পর্যন্ত বাইডেনের জয়

President-elect Joe Biden smiles as he speaks Tuesday, Nov. 10, 2020, at The Queen theater in Wilmington, Del. (AP Photo/Carolyn Kaster)

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন জর্জিয়ায় ভোট পুনর্গণনাতেও জয়ী হয়েছেন। ফলাফলের শুরুতে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত থাকলেও শেষ পর্যন্ত ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বড় ব্যবধানে হারিয়েছেন তিনি। গতকাল শুক্রবার রাতে ঝুলে থাকা দুই রাজ্যের ফলাফল স্পষ্ট হয়। যাতে রিপাবলিকান ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত জর্জিয়ায় জয় নিশ্চিত করেন বাইডেন। আর নর্থ ক্যারোলাইনায় জয়ী হয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বিবিসি, সিএনএনসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সবক’টি অঙ্গরাজ্যের ফলাফল পাওয়া গেছে। বাকি থাকা দুই অঙ্গরাজ্যের একটিতে জো বাইডেন আর অন্যটিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প বিজয়ী হয়েছেন। জর্জিয়ায় জিতে আরও ১৬ ইলেক্টোরাল ভোট ঝুলিতে পুরেছেন বাইডেন।

১৯৯২ সালের পর এই প্রথম জর্জিয়ায় জয় পেয়েছেন কোনো ডেমোক্র্যাট প্রার্থী। এ নিয়ে ৫০ অঙ্গরাজ্যে মোট ৫৩৮ ইলেক্টোরাল ভোটের মধ্যে ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জো বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬টি এবং রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্প পেয়েছেন ২৩২টি ইলেক্টোরাল ভোট।

চুড়ান্ত ফল ঘোষণা শেষে নির্বাচনের পর প্রথমবারের মতো জনসম্মুখে বক্তব্য দিয়েছেন ট্রাম্প। এদিন নির্বাচনী ফলাফল নিয়ে কোন মন্তব্য না করলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন, ২০ জানুয়ারি অন্য কোন প্রশাসন থাকতে পারে।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পাশাপাশি প্রতিনিধি পরিষদের নির্বাচনে জয় পেয়েছে ডেমোক্রেটিক পার্টি। তারা ২১৮ আসনের ম্যাজিক ফিগার পার হয়ে আরও একটি বেশি পেয়েছেন। রিপাবলিকানরা পেয়েছেন ২০৩টি আসন। তবে এখনো ১৩ আসনের ফল ঘোষণা বাকি।

অবশ্য ১০০ আসনের সিনেটে নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছে রিপাবলিকানরা। তারা ইতোমধ্যে ৫০টি আসন নিশ্চিত করেছে। ডেমোক্র্যাটরা পেয়েছে ৪৮টি আসন। দুটি আসনে দ্বিতীয় দফা নির্বাচন হচ্ছে। এ দুটি আসন জিততেও সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে রিপাবলিকানরা।

জো বাইডেন ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করেছেন। তবে ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ট্রাম্প বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রশাসন কোন দলের হবে তা সময় বলে দেবে।’

এর আগে টুইটারে একাধিক পোস্টে ৩ নভেম্বরের নির্বাচনকে অস্বচ্ছ বলে অভিযোগ করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। যদিও মার্কিন নির্বাচনী কর্মকর্তারা তার এ দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন। তাদের কথায়, যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে সুরক্ষিত নির্বাচন হয়েছে এবার।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button