ফার্স্ট লেডি হয়েও শিক্ষকতা চালিয়ে যাবেন জিল বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের ২৩১ বছরের ইতিহাসে প্রথম ফার্স্ট লেডি হিসেবে বিরল একটি রেকর্ড গড়তে যাচ্ছেন জো বাইডেনের স্ত্রী জিল বাইডেন। প্রেসিডেন্টের স্ত্রী হিসেবে তিনিই প্রথম, যিনি হোয়াইট হাউজের সব ব্যস্ততা সামলে শিক্ষকতা পেশা চালিয়ে যাবেন। যুক্তরাষ্ট্রে এর আগে কোনো ফার্স্ট লেডি পারিশ্রমিকের বিনিময়ে এভাবে অন্য পেশায় থাকেননি।

সিবিএস নিউজ, ফক্স২৯ সহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পেশাদার শিক্ষিকা হিসেবে কাজ চালিয়ে যাওয়ার বিষয়ে আগেই ঘোষণা দিয়েছেন জিল বাইডেন। যদিও যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি নিয়ম অনুযায়ী, ফার্স্ট লেডিদের নানা ধরনের কাজ করতে হয়। সেসব সামলে অন্য কাজ করা কঠিন।

ডক্টরেট ডিগ্রিধারী জিল দীর্ঘদিন ধরে কমিউনিটি কলেজ শিক্ষিকা হিসেবে কাজ করছেন। তার স্বামী জো বাইডেন যেদিন মনোনয়ন নেন, সেদিন কলেজ থেকেই অনলাইনে বিবৃতি দেন তিনি। গত আগস্টে জিল বাইডেন সিবিএস সানডে মর্নিংকে বলেন, ‘যদি আমরা হোয়াইট হাউজে যেতে পারি, তখনো আমি শিক্ষকতা চালিয়ে যাব।’

তিনি বলেন, ‘এটি গুরুত্বপূর্ণ এবং আমি চাই যে লোকেরা শিক্ষকদের মূল্যবান করে তুলুক এবং তাদের অবদানগুলো জেনে রাখুন এবং এই পেশাটিকে আরও বাড়িয়ে তুলক।’

‘আমি অনেক অভিবাসী এবং শরণার্থীকে শেখাই। তাদের গল্প আমি ভালোবাসি। মানুষ হিসেবে তাদের আমি ভালোবাসি এবং আমি সেই বিষয়টা ভালোবাসি যাতে তাদের সাফল্যের পথে আমি তাদের সহায়তা করতে পারি,’ যোগ করেন জিল বাইডেন।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময় সেকেন্ড লেডি (ভাইস প্রেসিডেন্টের স্ত্রী) থাকার সময়ও এসব কাজ করেছেন জিল। বাইডেন যখন ভাইস প্রেসিডেন্ট তখন ক্যানসার রোগীদের তহবিল জোগাড় করে দিয়েছেন, সামরিক বাহিনীর সদস্যদের সাহায্য করেছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দ্বিতীয় স্ত্রী জিল। তার প্রথম স্ত্রী নিলিয়া হান্টার ও মেয়েকে তিনি হারান এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায়। আর ২০১০ সালে নিজের বড় ছেলেকে হারান ক্যানসারে।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button