রাজধানীতে নার্স দিয়ে প্রসবের সময় নবজাতকের মৃত্যু

ডাক্তার ছাড়া নার্স দিয়ে প্রসবের সময় নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে রাজধানীর উত্তরা ক্রিসেন্ট হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে। বুধবার (০৪ নভেম্বর) সন্ধ্যায় হাসপাতালটির ডায়াগনস্টিক সেন্টারে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর যৌথভাবে অভিযান চালায়। এসময় মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ দিয়ে ল্যাব টেস্ট করানোর প্রমাণ পায় তারা। আটক করা হয় ল্যাব ইনচার্জকে। এছাড়া মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ দিয়ে পরীক্ষা করানো ও অনুমোদনহীন ওষুধ রাখার অভিযোগে হাসপাতালটির বিরুদ্ধে ১৭ লাখ টাকা জরিমানা করেছে র্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। ভুক্তভোগীর অভিযোগ, মঙ্গলবার বিকেলে গর্ভবতী বোনকে উত্তরা ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। রাতে স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় ডাক্তার ছাড়াই নার্স দিয়ে প্রসবের সময় নবজাতকের মৃত্যু হয়। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি আপোষের প্রস্তাব দেয় বলে জানান রোগীর স্বজন। অভিযান শেষে পলাশ কুমার বসু বাংলানিউজকে বলেন, ক্রিসেন্ট ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড কনসালটেশন সেন্টারকে চিকিৎসক ছাড়াই এক মায়ের অস্ত্রোপাচারের ফলে নবজাতক মারা গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে ভুক্তভোগী পরিবারকে নিয়মিত আইনে মামলা দায়েরের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মেয়াদোত্তীর্ণ রিএজেন্ট দিয়ে বিভিন্ন পরীক্ষা করাচ্ছিলো প্রতিষ্ঠানটি। এ অপরাধে প্রথমে ক্রিসেন্ট ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড কনসালটেশন সেন্টারকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এর বাইরে প্রতিষ্ঠানটির ক্রিসেন্ট ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ও অনুনোমদিত ওষুধ পাওয়া গেছে। এমনকি সেখানে কোনো ফার্মাসিস্ট পাওয়া যায়নি। এ অপরাধে আরও সাত লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button