যুক্তরাষ্ট্রের মেয়েরা ট্রাম্পকে আর ভালোবাসেন না

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দামামা ছড়িয়ে পড়েছে পুরো বিশ্বে। সবার চোখে এখন যুক্তরাষ্ট্রের দিকে। এর মধ্যে ইলেক্টোরাল ভোটে ট্রাম্পের চেয়ে বেশ এগিয়ে জো বাইডেন। যদিও ইতিমধ্যে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্য ফ্লোরিডা এবং ওহাইও জিতে নিয়েছেন ট্রাম্প।

মার্কিন গণমাধ্যম বলছে, ক্যালিফোর্নিয়া, ওরেগন এবং ওয়াশিংটনে জো বাইডেন জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন ট্রাম্পের কাছ থেকে। ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হতে হলে ২৭০টি ইলেক্টোরাল ভোটে জিততেই হবে। এখন পর্যন্ত ইলেক্টোরাল ভোটের প্রাপ্ত ফল অনুযায়ী বাইডেন পেয়েছেন ২৩৮ আর প্রতিদ্বন্দ্বী ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৩টি ভোট।

কে হচ্ছেন পরবর্তী মার্কিন প্রেসিডেন্ট তা জানতে সবাইকে অপেক্ষা করতে আরও কিছু সময়। তবে প্রেসিডেন্টে পদ প্রত্যাশী দুই প্রার্থীর প্রতি কাদের কেমন মনোযোগ ও পছন্দ তা এরিমধ্যে জানা গেছে। আমেরিকায় ন্যাশনাল এক্সিট জরিপের রায়, কেবল শ্বেতাঙ্গ ও বয়স্করা বাইডেনের থেকে ট্রাম্পকে বেশি সমর্থন করছেন।

এই এক্সিট পোলটি করা হয়েছে মূলত জাতি, লিঙ্গ, বয়স ও শিক্ষার ভিত্তিতে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বয়স্ক ও শ্বেতাঙ্গদের ভোট পাওয়ার ক্ষেত্রে বাইডেনের থেকে ট্রাম্প বেশ খানিকটা এগিয়ে। বাইডেন আবার কৃষ্ণাঙ্গ, এশীয়, কলেজ পড়ুয়া এবং ১৮ থেকে ২৯ বছর বয়সী এবং মেয়েদের ভোট পাওয়ার ক্ষেত্রে ট্রাম্পকে পিছনে ফেলে দিয়েছেন। অন্য ক্ষেত্রগুলিতেও বাইডেন খুব সামান্য হলেও এগিয়ে আছেন।

এক্সিট পোলে দেখা গেছে, শ্বেতাঙ্গ ভোটের ৫৫ শতাংশ পেতে পারেন ট্রাম্প, বাইডেন ৪৩ শতাংশ। আবার কৃষ্ণাঙ্গ ভোটের ক্ষেত্রে হিসাবটা উল্টে যাচ্ছে। সেখানে বাইডেন পেতে পারেন ৮৭ শতাংশ ও ট্রাম্প ১১ শতাংশ ভোট। যাদের বয়স ৬৫ বছরের বেশি তারা ট্রাম্পের দিকেই ঝুঁকে। এই বয়সের ৫১ শতাংশ ভোটদাতার সমর্থন পেতে পারেন ট্রাম্প। বাইডেন পেতে পারেন ৪৮ শতাংশ। আবার তরুণ ভোটদাতা, যাদের বয়স ১৮ থেকে ২৯ এর মধ্যে, সেখানে বাইডেন এগিয়ে আছেন। তিনি ৬৪ শতাংশ তরুণের ভোট পেতে পারেন। ট্রাম্প পেতে পারেন ৩৩ শতাংশ।

পুরুষদের ভোট প্রায় সমান সমান পেতে পারেন ট্রাম্প ও বাইডেন। কিন্তু মেয়েদের ভোট পাওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকতে পারেন বাইডেন।

এক্সিট পোল বলছে, ৫৭ শতাংশ মেয়ে বাইডেনকে ভোট দিয়েছেন, ৪২ শতাংশ ট্রাম্পকে।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button