ধুতি-পাঞ্জাবির সাজে শুভশ্রীর কোলে ইউভান

পরনে ধবধবে সাদা ধুতি-পাঞ্জাবি, আঁচড়ানো চুল। পাঞ্জাবির হাতা এবং ধুতির কোঁচে নীল রঙের সুতোর ডিজাইন। এমন সাজে মা-বাবার কোলে মাসির বাড়ির দুর্গাপুজোয় সবার সঙ্গে সাক্ষাৎ। পুজোর সকালে টলিউডের তারকা দম্পতি রাজ-শুভশ্রীর খুদে রাজের এমন ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনার জন্ম দিয়েছে। ছোট্ট ইউভানকে দেখে শুভেচ্ছা বার্তা দিয়েছেন নুসরত জাহান, কৌশানিসহ টলিউডের অন্যান্য তারকারাও।

এ বছর ইউভানের প্রথম পুজো। তাই বাবা-মা রাজ চক্রবর্তী ও শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়ের কাছে ভীষণ স্পেশাল বছরটি। এমন মহামারি না থাকলে হয়তো বাবা-মায়ের কোলে চেপে ছোট ইউভান কলকাতা শহরের পুজোর আমেজ দেখতে যেত। কিন্তু বাসা থেকে বের হতে না পারলেও থেমে থাকেনি ছোট ইউভান সাজুগুজু। তাই অষ্টমী সকালে স্নান করে পরিপাটি করে চুল আঁচড়ে একেবার ধুতি-পাঞ্জাবি পরে সে তৈরি। সকালের নরম রোদ গায়ে মেখে মা শুভশ্রীর কোলে শুয়ে ছবি তুলেছে ইউভান।

মহাঅষ্টমী ছেলেকে নিয়ে কেমন কাটল ‘রাজশ্রী’র? ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে রাজ জানিয়েছেন, পুজো থেকে দূরে থাকতে আর ভালো লাগছিল না। তাই সব সতর্কতা মেনেই শুভশ্রীর দিদির বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছিলেন সপরিবারে। সেখানে প্রতি বছর ধুমধাম করে দুর্গাপূজা হয়। ওখানেই তারা অঞ্জলি দিয়েছেন। সারা দিন কাটিয়েছেন। খিচুড়ি, তরকারি, ভাজা দিয়ে সাজানো ভোগের থালিও মিস করেননি। জানা গেছে, রাজও সেজেছিলেন সাদা পাঞ্জাবি-ধুতিতে। শুভশ্রী উজ্জ্বল সাদা সালোয়ার, পিচ রঙা দোপাট্টায়। মা-বাবার কোলে চেপে মাসির বাড়ি পৌঁছলেও বাকি সময় বেশির ভাগই ইউভানের কেটেছে দাদু, মাসি, দিম্মার কোলে। ছেলের চোখে ঘুম নামতেই সঙ্গে সঙ্গে কোলবদল। পাওয়ার ন্যাপে যাতে বিঘ্ন না ঘটে তার জন্য ছেলে কোলে ঠায় পুজো দালানেই বসেছিলেন রাজ!

এমন আরো সংবাদ

Back to top button