গোলান থেকে ইরানকে উৎখাতের হুঁশিয়ারি ইসরাইলের

গোলান মালভূমি সীমান্তে ইরান এবং হিজবুল্লাহর উপস্থিতি সহ্য করা হবে না বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন ইসরাইলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গ্র্যান্টজ। বুধবার ইসরাইল রেডিওর কাছে এ মন্তব্য করেন তিনি।

দখলকৃত গোলান মালভূমির পার্শ্ববর্তী সিরিয়ার কুনেয়ত্রা প্রদেশের আল হুররিয়া গ্রামে মঙ্গলবার রাতে ইসরাইলের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় একটি বিদ্যালয় ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সিরিয়ার রাষ্ট্র গণমাধ্যমের এমন দাবির পরই ইসরাইলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ বিবৃতি দিলেন।

টাইম অব ইসরাইল গ্র্যান্টজকে প্রশ্ন করেছিল, ওইদিন রাতভর সিরিয়ায় কি হয়েছিল? জবাবে তিনি বলেন, আমি ওখানে যাইনি, কে হামলা চালিয়েছে, কি হয়েছে গত রাতে-এসবের কিছুই আমি জানি না।

ওই অঞ্চল থেকে হিজবুল্লাহ এবং ইরানের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সমূলে উপড়ে ফেলতে যা কিছু করা লাগে, সম্ভাব্য সব কিছু করার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি।

২০১১ সালে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরু হয়। এ সুযোগে দেশটি লক্ষ্য করে হাজারো বার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইসরাইল।

এসব হামলার বিস্তারিত খুব কমই জানিয়েছে ইসরাইলি সেনাবাহিনী। তাদের দাবি, বাশার আল আসাদকে সহায়তায় সিরিয়ায় ইরানের উপস্থিতি ইসরাইলের নিরাপত্তায় হুমকি তৈরি করছে।

১৯৬৭ সালের বিচ্ছিন্ন আরব যুদ্ধের পর থেকে ইসরাইল বিশাল গোলান মালভূমির দুই তৃতীয়াংশ দখল করে আছে।

এমন আরো সংবাদ

Check Also
Close
Back to top button