পাবনায় আগাম মুড়িকাটা পেঁয়াজ রোপন শুরু

পাবনা প্রতিনিধি:

দেশের শীর্ষ পেঁয়াজ উৎপাদকারী জেলা পাবনার সুজানগর, সাথিয়া, বেড়াসহ বিভিন্ন উপজেলায় আগাম মুড়িকাটা পেঁয়াজ রোপন শুরু করেছেন চাষিরা। বাজারে পেঁয়াজের অগ্নিমূল্যের প্রভাবে বেড়েছে কন্দ ও পেঁয়াজ বীজের দামে। তারপরও বেশি দাম পাওয়ার আশায় অধিক জমিতে পেঁয়াজ রোপন করছেন চাষিরা। তাদের দাবি, ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করলে দেশের চাহিদার পুরোটাই পূরণ সম্ভব।

বর্ষার পানি নেমে যাওয়ার সাথে সাথে জেলার বিভিন্ন উপজেলার উঁচু জমিতে চাষ শুরু হয়েছে আগাম জাতের মুড়িকাটা পেঁয়াজ। কন্দ থেকে উৎপাদিত এ পেঁয়াজ মধ্য-সেপ্টেম্বরে রোপণ করে উঠানো হয় নভেম্বরের শেষে। তবে, এ বছর কয়েক দফা বন্যা ও অধিক বৃষ্টিতে পিছিয়ে গেছে আবাদ। তাই মৌসুম ধরতে কাক ডাকা ভোরে মাঠে মাঠে পেঁয়াজ রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা।

গত বছর মুড়িকাটা পেঁয়াজে ভাল লাভ হয়। এ বছরও বাজারে পেঁয়াজের দাম চড়া। তাই বাড়ছে এ জাতের পেঁয়াজ চাষের পরিধি। তবে, বাজারে পেঁয়াজের অগ্নিমূল্যের প্রভাবে বীজের দাম বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন চাষিরা।

গত দুবছর পেঁয়াজ চাষিরা ভালো দাম পাওয়ায় জমির পরিমাণ বেড়েছে। অনুকূল আবহাওয়া আর ভালো দামের আশায় পেঁয়াজেই স্বপ্ন বুনছেন তারা।

কৃষকদের দাবি, কাঙ্খিত বাজার মূল্য নিশ্চিত ও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পেলে উৎপাদিত পেঁয়াজ দিয়েই দেশের চাহিদা মেটানো সম্ভব।

পেঁয়াজ চাষে কৃষকদের পর্যায়ক্রমে সহযোগিতা বাড়ানো হবে বলে জানালেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর উপ পরিচালক শামসুল আলম। তিনি বলেন, এই প্রকল্পের কোন বরাদ্দ পাইনি, পেলে কৃষকদের দেয়া হবে।

চলতি বছর জেলায় সাড়ে ৯ হাজার হেক্টর মুড়িকাটাসহ সব মিলে ৫৩ হাজার হেক্টর জমিতে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টনের বেশি পেঁয়াজ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button