স্পিক ঢাকা এর উদ্যোগে বাই-সাইকেল ভ্রমণের আয়োজন

Dhaka News
স্পিক ঢাকা এর উদ্যোগে বাই-সাইকেল ভ্রমণের আয়োজন

মো. রাসেল আহম্মেদ: করোনা ভাইরাস মহামারীর মধ্যে নিরাপদ ও স্বাস্থ্যসম্মত যানবাহন বাই সাইকেলকে উৎসাহী করতে আন্তর্জাতিক সামাজিক সংগঠন স্পিক ঢাকা এবং বাংলাদেশ ট্রাভেল রাইটস এসোসিয়েশন আসছে ২৫ জুলাই উত্তরা থেকে উলোখোলা, নাগরি সড়কে বাই সাইকেল ভ্রমণের উদ্যোগ নিয়েছে। বাই সাইকেল একটি পরিবেশ বান্ধব স্বাস্থ্যসম্মত যান যা আমাদের দেহের শক্তি ও কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এটি অবসরকালীন সময়ে ভাল বিনোদনের একটি অংশ। করোনা মহামারীর মধ্যে আমাদের অনেকের মানষিক স্বাস্থ্যের ব্যাপক ক্ষতির পাশাপাশি আমরা বিষন্নতায় ভুগছি। নিয়মিত বাই সাইকেলিং আমাদের এসব থেকে পরিত্রাণের পাশাপাশি শরিলের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় যা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের এখন পর্যন্ত একমাত্র হাতিয়ার।

এপ্রসঙ্গ কথা হলে এই আয়োজনের উদ্যোক্তারা বলেন, আমাদের একমাত্র উদ্দেশ্য হলো বর্তমান করোন ভাইরাসের নতুন বাস্তবতায় বাই সাইকেল সম্পর্কে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করা। নিজে এবং পরিবারকে নিরাপদ রাখতে গন পরিবহন পরিহার করে সাইকেলকে জনপ্রিয় করা। তাছাড়া এই বাহন সাশ্রয়ী ও সবার নাগালের মধ্যে এবং এর কোন ধরনের ক্ষতিকারক প্রতিক্রিয়া নেই৷ পশ্চিমা বিশ্বে এটি ব্যাপক জনপ্রিয় বাহন হলেও আমাদের দেশে এটির ব্যবহারে এখনো আমরা অনেক পিছিয়ে।
সরকার এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে এই বাই সাইকেল ভ্রমনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগ্রহীরা অংশগ্রহন করতে speak.social ওয়েবসাইটে অথবা Speak Dhaka নামক ফেইসবুক গ্রুপে নিজেদের রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে। অংশগ্রহণ করতে ইচ্ছুক সকলকে নিজস্ব বাই সাইকেল থাকা আবশ্যক এবং আয়োজকদের পক্ষ থেকে টি শার্ট, কেপ, মাক্স এবং দুপুরের খাবার প্রদান করা হবে।
উল্লেখ, স্পিক ঢাকা একটি আন্তর্জাতিক সামাজিক উদ্যোগ যা বিশ্বের ১১ টি দেশের ২৪ টি শহরে কাজ করছে এবং যেখান থেকে মানুষ একে অপরের সাথে ভাষা ও সাংস্কৃতিক আদান-প্রদান করতে পারে। বাংলা, ইংরেজি, জার্মান, জাপানিজ, পর্তুগীজ, স্প্যানিশ, ফরাসি সহ ৪০ টির বেশী ভাষা শিখার সুযোগ রয়েছে “স্পিক ঢাকা” এর মাধ্যমে এবং দেশের ভেতরে থেকেই আন্তর্জাতিক একটি কমিউনিটির অংশ হতে পারেন! পাশাপাশি আপনিও শেয়ার করতে পারেন আপনার যেকোন ভাষা অন্যদের সাথে।
এছাড়া সংগঠনটির পক্ষ থেকে প্রতি সপ্তাহে আন্তর্জাতিক এবং জাতীয় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইসুতে অনলাইন এবং অফলাইনে সামাজিক সচেতনতা মূলত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। যার মাধ্যমে সামাজিক সচেতনতা তৈরির পাশাপাশি একে অপরের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে ধারণা এবং অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করতে পারে। এর মাধ্যমে তরুণদের গঠনমূলক ও নতুন নতুন উদ্ভাবনী কাজে উৎসাহ প্রদান করা হয়।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button