মাদরাসা শিক্ষকের বিশেষ অঙ্গ কাটলো ছাত্র!

ময়মনসিংহের নান্দাইলে এক মাদরাসা শিক্ষকের বিশেষ অঙ্গ কেটে দিয়েছে তারই একজন ছাত্র। শিক্ষক তাকে বলাৎকারের চেষ্টা করেছিল বলে ওই শিক্ষার্থীর অভিযোগ। ওই মাদরাসা শিক্ষকের নাম মো. আতাবুর রহমান (২৮)। সে নান্দাইলের খারুয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা। গত বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই শিক্ষার্থীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা। পরে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে নান্দাইল থানায় এ ঘটনায় ছাত্রকে আসামি করে মামলা করেছেন আহত শিক্ষকের বাবা।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ঘটনার দিন রাতে উপজেলার একটি মাদারাসার মাঠে ওয়াজ মাহফিল চলছিল। সেখানে অংশ নেন শিক্ষক আতাবুর। ওই ওয়াজ মাহফিলে তার দেখা হয় ১৭ বছর বয়সী এক ছাত্রের সঙ্গে। এসময় আতাবুর রহমান ওই ছাত্রকে তার বাড়িতে আমন্ত্রণ জানান। ওই ছাত্র আতাবুর রহমানের সঙ্গে হাঁটতে হাঁটতে বাড়ির দিকে যাচ্ছিল।

পথে শিক্ষক আতাবুর রহমান ছাত্রের সঙ্গে আপত্তিকর আচরণ শুরু করেন। এতে ওই ছাত্র বাধা দিলে শিক্ষক তাকে জোরপূর্বক বলাৎকারের চেষ্টা করেন। এসময় ওই মাদরাসা শিক্ষার্থীর পাঞ্জাবির পকেটে থাকা নখ কাটার যন্ত্র দিয়ে শিক্ষকের বিশেষ অঙ্গ কেটে দেয়। পরে শিক্ষক চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ওই শিক্ষার্থীকে আটক করে পুলিশে দেয়।

নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান আকন্দ বলেন, ‘মামলার পর ওই মাদরাসা শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তাকে আদালতে পাঠানো হবে। আহত শিক্ষক বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।’

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button