মিথ্যা বলছে কিনা জানতে ফুটন্ত তেলের কড়াইয়ে চুবানো হলো নাবালিকার হাত!

মিথ্যা বলছে কিনা তা জানতে এক নাবালিকার হাত ফুটন্ত তেলের কড়াইয়ে চুবিয়েছে প্রতিবেশী এক মহিলা। গত বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাতের পাতন শহরের কাছে সনতলপুর গ্রামে। এ খবর নিশ্চিত করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

পুলিশের বরাত দিয়ে আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়, মেয়েটি মিথ্যা বলছে কিনা তা দেখার জন্য ওই মহিলা তার হাত তেলে চুবিয়েছিলেন। অভিযুক্তের নাম লাখি মাকয়ানা (৪০)। তিনি ওই নাবালিকার প্রতিবেশী।

অভিযুক্ত মহিলাকে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এই ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে নেটমাধ্যমে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, নাবালিকার ডান হাতের তালু পুড়ে গেছে।

আনন্দবাজার জানিয়েছে, কিছুদিন আগে অভিযুক্ত মহিলা তার বাড়ির সামনে এক অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলছিলেন। তখন তা দেখতে পায় নাবালিকা। গত বুধবার সকালে নাবালিকার মা-বাবা বাড়িতে ছিলেন না। সে সময় অভিযুক্ত নাবালিকাকে জিজ্ঞাসা করেন, সেই ব্যক্তির সঙ্গে তার কথা বলার বিষয়টি সে অন্যদের জানিয়েছে কিনা।

নাবালিকা কাউকে জানায়নি বললেও অভিযুক্ত তাকে বাড়ির ভেতরে নিয়ে যান। সে মিথ্যা বলছে কিনা তা জানতে ফুটন্ত তেলে নাবালিকার হাত চুবিয়ে দেন। নাবালিকা পালানোর চেষ্টা করলেও তার হাত অভিযুক্ত তেলে চুবিয়ে রেখেছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে, এই ঘটনার পর প্রতিবেশীরা নাবালিকা মেয়েটিকে হাসপাতালে নিয়ে যান। কারণ তার মা-বাবা সে সময় কাজের জন্য বাইরে গিয়েছিলেন। ঘটনার পর অভিযুক্ত মহিলা পালিয়ে গিয়েছিলেন। তবে পরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button