স্বামীর পেট ব্যথা দেখে গৃহবধূর আত্মহত্যা!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন জান্নাত নামে এক গৃহবধূ। তিনি সদর উপজেলার বুধল ইউনিয়নের বুধল গ্রামের আলী হোসেনের স্ত্রী। আজ বুধবার ভোরে ২৫০ শয্যা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আটমাস আগে সদর উপজেলার বুধল ইউনিয়নের বুধল গ্রামের হীরা মিয়ার ছেলে আলী হোসেনের সঙ্গে জান্নাতের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসার সুখে চলছিল। গত তিনদিন আগে জান্নাতের স্বামী আলী হোসেনের পেটে ব্যথা শুরু হয়। এই ব্যথা দুদিনেও ভালো হচ্ছিল না।

এরইমধ্যে আলী হোসেনের পেট ব্যথা নিয়ে প্রতিবেশীরা বলাবলি করছিলেন, ‘বিয়ের পর স্বামীর পেট ব্যথা হলে মারা যায়’। এই কথা শোনার পর জান্নাত মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি সিদ্ধান্ত নেন স্বামী মারা যাওয়ার আগে নিজে মারা যাবেন। পরে ঘরে থাকা ইঁদুর মারা ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন জান্নাত। এসময় তাকে মুমুর্ষু অবস্থায় পরিবারের সদস্যরা উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি বিষপান করার কারণ বলেন।

আজ বুধবার ভোরে মারা যান জান্নাত। তার মরদেহ হাসপাতালে ফেলে চলে যান স্বজনরা। হাসপাতালের রেজিস্ট্রার খাতায় দেওয়া জান্নাতের স্বামী আলী হোসেন বলেন, ‘আমরা বাড়িতে এসেছি। আত্মীয়-স্বজনদের নিয়ে হাসপাতালে আসবো। আমার পেট ব্যথার কারণে জান্নাত বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে। কিন্তু আমার পেট ব্যথা ভালো হয়ে গেছে।’

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম জানান, বিষপান করায় একটি মেয়ে মারা গেছে বলে জানতে পেরেছেন। হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা আছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button