দক্ষিণ আফ্রিকায় সহিংসতায় ৭২ জনের প্রাণহানি

সাবেক প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমার কারাদণ্ডের পর দক্ষিণ আফ্রিকার একাংশে সহিংস বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। চলমান সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭২ জনে দাঁড়িয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ স্থানীয় সময় মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, দেশের বিভিন্ন স্থানে দোকানপাট ও শপিংমলে লুটপাট করছেন বিক্ষোভকারীরা। এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে ১২৩৪ জনকে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে এসব তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনে বলা হয়, সহিংসতা ঠেকাতে পুলিশকে সহায়তার জন্য মাঠে সেনাবাহিনী নামানো হয়েছে।

বুধবার বিবিসিতে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা যায়, ডারবানের একটি ভবন থেকে একটি শিশুকে নিচে ফেলা হচ্ছে। ওই ভবনের নিচতলায় দোকানে লুটপাটের পর আগুন দেওয়া হয়। দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ বলছে, সহিংসতা উসকে দিচ্ছে এমন ১২ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতি সিরিল রামাফোসা এই সহিংসতাকে দক্ষিণ আফ্রিকার নব্বইয়ের দশকের পর দেখা সবচেয়ে ভয়াবহ সহিংসতার বলে অভিহিত করেছেন। তিনি জনগণকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমাকে কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে দেশজুড়ে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। গত শনিবার থেকে শুরু হয় এই সহিংসতা।

গত ৭ জুলাই আদালত অবমাননার দায়ে কারাগারে পাঠানো হয় জুমাকে। এর প্রতিবাদে জুমার নিজ প্রদেশ কাওয়াজুলু নাটালে বিক্ষোভ প্রথম দানা বাঁধে। এরপর তা আলেকজান্ডার, জোহানেসবার্গ সিটি, জেপিস টাউন, জার্মিস্টন, পিটারমেরিজবার্গ, ফোর্ডসবার্গ, ডেবিটন ও একটনবিলে ছড়িয়ে পড়ে।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button