স্ত্রীকে ধর্ষণ, স্বামীকে বলৎকার চার যুবকের

পঞ্চগড়ে এক ব্যক্তিকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে বলাৎকার করেছেন প্রতিবেশী চার যুবক। এতেই ক্ষান্ত হননি, ভুক্তভোগী ওই ব্যক্তির অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকেও ধর্ষণ করেছেন তারা। এ ঘটনায় আজ সোমবার বিকেলে পরিবার পঞ্চগড় সদর থানায় দুটি মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগীর পরিবার। পরে পুলিশ ওই চার যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তার আসামিরা হলেন- জগদল দক্ষিণ গোয়ালপাড়া এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে জয়নুল হক (২৫), একই এলাকার এন্তাজুল ইসলামের ছেলে রনী ইসলাম (২৪), শহিদুল ইসলামের ছেলে নুর হোসেন (২১), আব্দুল মালেকের ছেলে শাহিন হোসেন (২১)।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রোববার গভীর রাতে পঞ্চগড় সদর উপজেলার ওই চার যুবক প্রতিবেশী এক দিনমজুরকে চা পাতা তোলার জন্য ডেকে তোলে। পরে একটি চা বাগানে নির্জন স্থানে নিয়ে ওই চার যুবক তাকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ করে। একপর্যায়ে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তাকে বলাৎকার করে। এরই ফাঁকে জয়নুল ওই দিনমজুরের ঘরে ঢুকে তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকেও ধর্ষণ করে। সোমবার সকালে বিষয়টি তারা পরিবারের লোকজনকে অবহিত করেন। পরে স্থানীয়রা ওই চার যুবককে আটক করে পুলিশে দেয়।

এ ঘটনার পর অন্তঃসত্ত্বা ওই গৃহবধূকে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার বিকেলে ওই চার যুবককে আসামি করে পর্নোগ্রাফি আইনে একটি মামলা এবং তার স্ত্রী জয়নুলকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু আক্কাছ আহমদ বলেন, ‘এ ঘটনায় চার যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা এলাকায় বখাটে হিসেবে পরিচিত। তাদের বিরুদ্ধে থানায় দুটি মামলা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে অন্যকোনো যোগসূত্র আছে কি-না তা জানতে আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হবে।’

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button