ব্রাজিলকে ফাইনালের টিকিট কেটে দিলেন সেই পাকুয়েতা

কোপা আমেরিকার গ্রুপ পর্বে পেরুকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল ব্রাজিল। সেই সুখস্মৃতিতে পুঁজি করেই মঙ্গলবার ভোরে মাঠে নামে ব্রাজিল।

আর ব্রাজিলের রক্ষণভাগ যে কত শক্তিশালী তার আরো এক প্রমাণ মিলল এ ম্যাচে। কোনোমতেই সেলেকাওদের ডিফেন্ডারদের পরাস্ত করে বল জালে জড়াতে পারল না পেরুর ফরোয়ার্ডরা।

৪-২-৩-১ ছকে খেলতে নেমে গোলরক্ষক এদেরসন মোরায়েসের সামনে দুই সেন্টারব্যাক হিসেবে খেলেছেন পিএসজির সাবেক দুই সতীর্থ থিয়াগো সিলভা ও মার্কিনিওস। দুই ফুলব্যাক হিসেবে খেলেছেন জুভেন্টাসের দানিলো ও আতলেতিকো মাদ্রিদের রেনান লোদি। মিডফিল্ডার ফ্রেড ও কাসেমিরোকে পেছনে রেখে আক্রমণাত্মক মিডফিল্ডে খেলেছেন লুকাস পাকুয়েতা। উইঙ্গার হিসেবে বল টেনে নিয়ে গেছেন রিচার্লিসন ও এভেরতন সোয়ারেস। আর সবার সামনে স্ট্রাইকার হিসেবে খেলেছেন নেইমার।

নেইমার-পাকুয়েতার ছন্দময় খেলায় পরাস্ত হয়েছে পেরু। গেরেসার দলকে আবার হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠেছে তিতের দল।

এবারের ব্যবধানটা বেশি নয়। রিও দে জেনেইরোর নিল্তন সান্তোস স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার ভোরে সেমি-ফাইনালে ১-০ গোলে জিতেছে ব্রাজিল।

ম্যাচের প্রথম ২০ মেনিটে বেশ দাপট দেখিয়েছে ব্রাজিল। একাধিকবার পেরুর রক্ষণে চাপ বাড়িয়েছে তারা। একের পর পর এক আক্রমণে ব্যতিব্যস্ত করে রেখেছে পেরু রক্ষণ ও গোলরক্ষককে।

৬ মিনিটের মাথায় লোদির ক্রস বিপদ ডেকে আনার আগেই মাঠের বাইরে বার করে দেন কোরজো। কর্ণার পেয়ে যায় ব্রাজিল। ৮ মিনিটের মাথায় পাকুয়েতা বল বাড়িয়ে দেন রিচার্লিসনের দিকে। তিনি নেইমারের দিকে বল বাড়িয়ে দিলে ব্যর্থ হন নেইমার।

১৩ মিনিটের মাথায় জোরালো শট নেন ক্যাসেমিরো। তা প্রতিহত করে সামর্থ্যের পরিচয় দেন পেরুর গোলরক্ষক গালেসে। ১৫ মিনিটের মাথায় এভার্টনের শট প্রতিহত করেন গালেসে। ১৯ মিনিটের মাথায় পাকুয়েতা-নেইমার জুটি আক্রমণে ওঠে। নিজেদের মধ্যে বল দেওয়া-নেওয়া করে পেরুর ডি-বক্সে ঢুকে যায়। তবে গেলেসেকে পরাস্ত করা সম্ভব হয়নি তাদের পক্ষে।

অবশ্য এবার লুকাস পাকুয়েতাকে আটকে রাখতে সক্ষম হননি গেলেসে। ৩৫ মিনিটের মাথায় ফের নেইমারের সঙ্গে ভালো বোঝাপড়া হয় পাকুয়েতার। দুর্দান্ত এক গোল করে লিড এনে দেন দলকে। মাঝ মাঠ থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সে ঢুকে যান নেইমার। তিন খেলোয়াড়ের মাঝ দিয়ে খুঁজে নেন অরক্ষিত পাকুয়েতাকে। এবার বল জালে জড়িয়ে দেন অলিম্পিক লিওঁর এই মিডফিল্ডার।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button