হাসপাতালে ৫০ শতাংশের বেশি করোনা রোগী গ্রামের

হাসপাতালে ৫০ শতাংশের বেশি করোনা রোগী গ্রামের এবং এসব রোগীর রোগের তীব্রতা অনেক বেশি হওয়ার পর হাসপাতালে আসছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম। আজ সোমবার সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুষ্ঠিত এক সভা শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় স্বাস্থ্য মহাপরিচালক বলেছেন, ‘আমরা গতকাল রোববার ৪৫টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ও চিকিৎসকদের সঙ্গে দীর্ঘ তিন ঘণ্টার বেশি কথা বলেছি। তারা বলেছেন, “রোগীর অধিকাংশের বেশি গ্রামের। রোগীরা হাসপাতালে আসছেন রোগে আক্রান্ত হওয়ার বেশ পরে, যখন পরিস্থিতি অনেক খারাপ হয়ে পড়ছে”।’

মডার্নার টিকা প্রয়োগ ১০ দিনের মধ্যে শুরু হতে পারে জানিয়ে অধ্যাপক খুরশীদ আলম বলেন, ‘যিনি যে কেন্দ্রে নিবন্ধন করবেন তিনি নির্দিষ্ট কেন্দ্রেই টিকা পাবেন। কেউ মডার্নার টিকা নিতে চাইলে তাকে সিটি করপোরেশন এলাকায় নিবন্ধন করতে হবে।’

স্বাস্থ্য মহাপরিচালক আরও বলেন, ‘আপাতত তিনটি ক্যাটাগরিতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নিবন্ধন কার্যক্রম চলছে। দু’এক দিনের মধ্যেই সবার জন্য নিবন্ধন কার্যক্রম উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে এবং সুরক্ষা অ্যাপে আগের সবগুলো ক্যাটাগরি যুক্ত করে দেওয়া হবে।’

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আজ আরও জানান, মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে টিকার নিবন্ধনে বয়স কমিয়ে ৩৫ বছর করা হয়েছে। এর আগে টিকা গ্রহীতার বয়স সর্বনিম্ন ৪০ বছর ছিল।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button