খুলনা মেডিকেলে ২৪ ঘণ্টায় ৫ জনের মৃত্যু

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। আজ শনিবার সকালে হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে একজন করোনা আক্রান্ত হয়ে এবং চারজন উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। কোভিড পজিটিভ ওই রোগীর বাড়ি বাগেরহাট জেলায়। তিনি রেড জোনে ছিলেন। মৃত অন্য চারজন ছিলেন ইয়েলো জোনে।’

জানা গেছে, হাসপাতালটির করোনা ইউনিটে রেড জোনে ৬৫ জন, ইয়েলো জোনে ২১ জন, হাই ডিপেনডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) ৩২ জন ও নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ১৩ জন চিকিৎসাধীন। খুলনা মেডিকেল কলেজ ল্যাবে আরটি-পিসিআর পদ্ধতিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাতে ১৩৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে খুলনা জেলার নমুনা ছিল ৩৩২টি, তাতে ১১৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৪ শতাংশ।

শনাক্ত ১৩৫ জনের মধ্যে খুলনায় বাড়ি ১১৬ জনের, বাগেরহাটের ১৩ জন, সাতক্ষীরার তিন জন, যশোরের দুই জন ও একজনের বাড়ি পিরোজপুর জেলায়। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিচ তলায় ১০০ শয্যার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত রোগী ভর্তি রয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে খুলনা সদর হাসপাতালকে কোভিড হাসপাতালে পরিণত করার সুপারিশ করা হয়েছে।

শনিবার সকাল পর্যন্ত খুমেক করোনা ইউনিটে ১০০ শয্যা বিপরীতে ১৩১ জন রোগী ভর্তি আছেন। এ বিষয়ে ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার বলেন, ‘অতিরিক্ত রোগী ভর্তি থাকায় চিকিৎসা সেবা দিতে ডাক্তার-নার্সদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।’ পরিস্থিতি সামাল দিতে খুলনায় এক সপ্তাহের নতুন করে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। আগামী রোববার থেকে এটি কার্যকর হবে।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button