ভারতে দলে দলে ঢুকছে মিয়ানমারের যোদ্ধারা

মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের ফলে হাজার হাজার মানুষ সীমান্ত পেরিয়ে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে ঢুকেছে। তাদের মধ্যে গণতন্ত্রপন্থী যোদ্ধারাও রয়েছে। খবর আল-জাজিরার।

এ নিয়ে অঞ্চলটিতে গণতন্ত্রপন্থী কর্মীদের সক্রিয়তা অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
ভারতের মিজোরাম, মনিপুর ও নাগাল্যান্ড রাজ্যে বর্তমানে মিয়ানমারের প্রায় ১৬ হাজার মানুষ রয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১০ জুন) রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, আগামী কয়েক মাসে এ সংখ্যা আরও বাড়বে।
মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা সবচেয়ে বেশি মানুষ আশ্রয় নিয়েছে মিজোরামে। সেখানে আশ্রয় নেওয়া শরণার্থীদের মধ্যে ঢুকে পড়া গণতন্ত্রপন্থী যোদ্ধাদের উপর কড়া নজর রাখছে রাজ্য কর্তৃপক্ষ।
রাজ্যের পুলিশ কর্মকর্তা ও প্রতিরোধ সংগ্রামের এক সদস্য জানান, মে মাসের শুরুতে মিয়ানমারের অন্তত ৫০ জন মিজোরামে একটি প্রশিক্ষণ শিবির গড়ে তুলেছিল। ভারতীয় আধা সামরিক বাহিনী শিবিরটি ভেঙে দেয়। এরপর শিবিরে অংশ নেওয়া সবাই মিয়ানমারে ফিরে যায়।
মিয়ানমারের বিদ্রোহীরা সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে আসার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ভারত সরকারের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। তিনি বলেন, তাদের কারণে নাগা ও মনিপুরেও বিদ্রোহ জেগে উঠবে।
মিয়ানমারে গত ১ ফেব্রুয়ারি সেনাবাহিনী অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলের পর থেকেই দেশটিতে আন্দোলন-বিক্ষোভ চলছে। এ আন্দোলন দমন করতে গিয়ে অন্তত ৮৫০ জনকে হত্যা করেছে নিরাপত্তা বাহিনী।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button