দলীয় চিঠির জবাব দিলেন মির্জা আব্বাস

বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলীর গুম হওয়া নিয়ে বক্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়ে দলের দেওয়া চিঠির জবাব দিয়েছেন স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। গতকাল সোমবার দুপুরে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে বাহক মারফত তিনি চিঠি পৌঁছে দেন।

জানতে চাইলে মির্জা আব্বাস আমাদের সময়কে বলেন, গতকাল দুপুরে তিনি চিঠির জবাব দলের মহাসচিবের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন। তবে চিঠির বিষয়বস্তু সম্পর্কে তিনি কিছু বলতে রাজি হননি। বিএনপির একটি সূত্রে জানা গেছে, চিঠিতে মির্জা আব্বাস তার অবস্থান স্পষ্ট করেন। তিনি বলেন, ১৭ এপ্রিল ইলিয়াস আলীকে নিয়ে বক্তব্য দেওয়ার পরদিন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়েছেন। তবুও দল তার বক্তব্যের ব্যাখ্যা জানতে চেয়েছে। সরকার ও সরকার সমর্থক গণমাধ্যমের বক্তব্যের সঙ্গে মিল রেখে কথা বলে যাচ্ছে দল। কিন্তু তার বক্তব্য অনুধাবন করেনি, যা অত্যন্ত দুঃখের বিষয়।

চিঠিতে তিনি আরও বলেন, আমি কখনো বিএনপি ও জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে কাজ করিনি। দলের দুঃসময়ে দলের জন্য কাজ করেছি নিরলসভাবে। সরকারবিরোধী আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছি। গত ৪৩ বছরে তার সামনে বিএনপি নিয়ে বিরূপ মন্তব্যের কড়া প্রতিবাদ করেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, তার পরও ৪৩ বছর পর এই প্রথম একটি বক্তব্য নিয়ে দলের ভেতর তাকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলা হয়েছে। তিনি এ-ও উল্লেখ করেন, তার কোনো কর্মের কারণে দল ক্ষতিগ্রস্ত হলে তিনি দুঃখিত।

কয়েক দিন ধরে ইলিয়াস আলীর গুম হওয়ার প্রেক্ষাপট নিয়ে মির্জা আব্বাসের বক্তব্যে বিএনপির ভেতরে আলোচনা চলছে। দলের তৃণমূল নেতাদের কাছে ‘বিশ্বস্ত ও ত্যাগী’ বলে পরিচিত আব্বাসের এই বক্তব্যকে প্রায় সবাই তার স্বভাবসুলভ সরল মনের বক্তব্য বলেই মনে করছেন। এর সঙ্গে কোনো ষড়যন্ত্র তারা খুঁজে পাননি। তবে দলের স্থায়ী কমিটির তিনজন সদস্য বিষয়টি নিয়ে বেশি ঘাঁটছেন।

গত ১৭ এপ্রিল দলের ভার্চুয়াল এক অনুষ্ঠানে ইলিয়াস আলীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা উল্লেখ করে মির্জা আব্বাস বলেন, ‘আমি জানি, আওয়ামী লীগ সরকার ইলিয়াস আলীকে গুম করেনি। তা হলে গুমটা কে করল? এই সরকারের কাছে এটা আমি জানতে চাই।’ ইলিয়াস আলী গুম হওয়ার আগের রাতে দলের কর্যালয়ে এক ব্যক্তির সঙ্গে মারাত্মক বাগ্বিত-া করেন বলে বক্তব্যে বলেন মির্জা আব্বাস। বিএনপি মহাসচিবের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ইলিয়াস আলীর গুমের পেছনে দলের অভ্যন্তরে লুক্কায়িত ‘বদমায়েশগুলো’কে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিন।

 

এমন আরো সংবাদ

Check Also
Close
Back to top button