আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে আসছে ২১ লাখ ডোজ টিকা

দেশে চলমান করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে দুই মাস বন্ধ থাকার পর আবার ভারত থেকে বাংলাদেশে আসছে টিকার চালান। এর ধারাবাহিকতায় আগামী মে মাসের প্রথম সপ্তাহে প্রায় ২১ লাখ টিকা দেশে আসবে। এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল বাশার খুরশীদ আলম।

আজ রোববার বিশ্ব ম্যালেরিয়া দিবস উপলক্ষে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আয়োজিত এক আলোচনা সভার পরে মহাপরিচালক সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘আগামী মাসের (মে) প্রথম সপ্তাহে সেরামের ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা আসবে বাংলাদেশে। একই সঙ্গে আসবে কোভ্যাক্সের এক লাখ ডোজ টিকা।’

অধ্যাপক আবুল বাশার খুরশীদ আলম বলেন, ‘বেক্সিমকো আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ২০ লাখ টিকা দিচ্ছে। এ ছাড়া কোভ্যাক্স থেকে ফাইজারের উৎপাদিত ১ লাখ টিকা পাওয়া যাবে। পাশাপাশি চীন থেকে ৫ লাখ ডোজ টিকা উপহার নেওয়া হবে। যেহেতু টিকা শেষের আগেই আমরা পাচ্ছি, তাই আশা করি কোনো সংকট হবে না।’

গত দুই মাসে দেশে টিকার কোনো চালান আসেনি। কবে নাগাদ টিকার চালান আসতে পারে, তা কেউ বলতে পারছে না। এদিকে, ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে টিকা পাওয়ার অনিশ্চয়তার মধ্যে গতকাল শনিবার বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নাজমুল হাসান পাপন বলেছিলেন, টিকা আনার জন্য সরকারকে জোরালো পদক্ষেপ নিতে হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আয়োজিত এক আলোচনা সভায় পাপনের এমন বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে জানতে চাওয়া হয়, বেক্সিমকো কবে টিকা দেওয়ার কথা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে জানিয়েছে? উত্তরে অধ্যাপক আবুল বাশার খুরশীদ আলম বলেন, গত পরশু বেক্সিমকো তাদের ২০ লাখ টিকার কথা জানিয়েছে।

দেশে ভারতের ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি আছে কি না, এমন কোনো নিশ্চিত খবর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছে নেই বলে জানান সংস্থটির মহাপরিচালক। তবে দেশে নাইজেরিয়ার ভ্যারিয়েন্ট পাওয়ার কথা তিনি গণমাধ্যমেই জেনেছেন। এ ছাড়া ভারতের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ করার বিষয়ে এখনো কোনা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানান তিনি।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button