কোভিডের নতুন ধরনে প্রয়োজন মাত্রাতিরিক্ত অক্সিজেন

কোভিডের নতুন ধরনে প্রথম থেকেই মাত্রাতিরিক্ত অক্সিজেনের প্রয়োজন পড়ছে। এতে তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে আইসিইউয়ের চাহিদা। সমস্যা সমাধানে হাইফ্লো অক্সিজেন ক্যানোলার সংখ্যা বাড়ানোর আশ্বাস স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের।

কোভিড নেগেটিভ সনদ নিয়েও একদিন পর মিরপুরের ডেলটা হাসপাতালের আইসিইউ ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন পিয়ারু নামের এক ব্যক্তিকে। এরপর কুর্মিটোলায় তাকে নিয়ে এলে মেলেনি আইসিইউ। সাধারণ শয্যায় নানা ভোগান্তির পর মৃত্যু হয়েছে তার।

রাজধানীর কোভিড ডেডিকেটেড ১০টি সরকারি হাসপাতালের ১০৪টিই পূর্ণ। তাই হাসপাতালের সাধারণ শয্যাতেই চিকিৎসা নিতে হচ্ছে সর্বাধিক খারাপ রোগীকেও।

আইসিইউ ও হাসপাতাল প্রধানদের দাবি, এ ধাপে রোগীরা প্রথম থেকেই খারাপ হচ্ছে। ওয়ার্ডে পর্যাপ্ত অক্সিজেন দেওয়ার পরও প্রয়োজন পড়ছে আইসিইউয়ের।

সমস্যা সমাধানে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার আশ্বাস দিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগনিয়ন্ত্রণ বিভাগের পরিচালক নাজমুল ইসলাম।

তিনি বলেন, এরই মধ্যে আমাদের কাছে ১০০০ হাইফ্লো অক্সিজেন ক্যানোলা আছে। চাহিদা নিরূপণ করে আরো অধিক সংখ্যক হাইফ্লো অক্সিজেন ক্যানোলা অন্যান্য জিনিসপত্র বাড়ানোর জন্য দ্রুত উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এই যন্ত্রপাতিগুলো ১০০ শতাংশ ব্যবহার করা হয় আর যথাসময়ে রোগী যদি আমাদের এখানে এসে পৌঁছায় আর আমরা তাদের পর্যাপ্ত অক্সিজেন দিতে পারি তাহলে এ মৃত্যুর মিছিল অনেকটা কমানো যায়।

রোগীদের অব্যাহত চাপে বেশ কয়েকটি হাসপাতালে বাড়ানো হয়েছে সাধারণ ও আইসিইউ শয্যা। তবে অতিরিক্ত মৃত্যু ঠেকাতে দেশে জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের ফলাফল পর্যালোচনা করে চিকিৎসার প্রটোকল নতুন করে সমন্বয়ের তাগিদ বিশেষজ্ঞদের।

এমন আরো সংবাদ

Back to top button