মামলা তুলে না নেওয়ায় যুবককে গুলি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নে মামলা তুলে না নেওয়ায় ওমর ফারুক (৩০) নামে এক যুবককে গুলি করে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় সন্ত্রাসী কালা বাবু এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে জানিয়েছে গুলিবিদ্ধ ফারুক ও পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টা দিকে গুলিবিদ্ধ ফারুককে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওমর ফারুকের অবস্থা আশংকাজনক। গুলিবিদ্ধ ওমর ফারুক গোপালপুর ইউনিয়নের দেবকালা গ্রামের খুরশিদ আলমের ছেলে।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক নাহিদ নূর তুষার জানান, ওমর ফারুক নামে ওই যুবকের বাম পাজরে শর্টগানের গুলি লেগেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে হাসপাতালের সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত এক বছর আগে স্থানীয় সন্ত্রাসী কালা বাবু তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাকবির্তকের একপর্যায়ে ওমর ফারুকের মাথা ফাঁটিয়ে রক্তাক্ত করে। ওই ঘটনায় ফারুক বাদী হয়ে কালা বাবুকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তারপর থেকে মামলাটি তুলে নিতে ফারুককে বিভিন্নভাবে হুমকি দিতে থাকে কালা বাবু।

আহত ফারুক অভিযোগ করে বলেন, ‘উপজেলার মোল্লাপুর গ্রামের জাফর উল্যার ছেলে ও সন্ত্রাসী কালা বাবু আমাকে মামলা তুলে নিতে বিভিন্নভাবে চাপ দিয়ে আসছিল। এর সূত্র ধরে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে কালা বাবু আমাদের ঘরে এসে আমার বুকের বাম পাশে অস্ত্র ঠেকিয়ে গুলি করে চলে যায়। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।’

এ বিষয়ে বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আগের একটি মামলা তুলে না নেওয়ায় মামলার আসামি সন্ত্রাসী কালা বাবু ওমর ফারুককে গুলি করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button