আত্মহত্যা করতে গেলেন প্রেমিকা, বাঁচাতে গিয়ে প্রেমিকের মৃত্যু

নরসিংদীর ঘোড়াশাল রেলস্টেশনে প্রেমিকাকে বাঁচাতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন সাইফুল ইসলাম (২৬) নামে এক প্রেমিক যুবক। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে জেলার পলাশ উপজেলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত তরুণীকে উদ্ধারের পর উন্নত চিকিৎসা দিতে ঢাকায় আনা হয়েছে। জানা গেছে, বেড়াতে গিয়ে মনোমালিন্যের কারণে আত্মহত্যা করতে ট্রেনের সামনে দাঁড়িয়েছিলেন প্রেমিকা। তাকে বাঁচাতে গিয়ে মৃত্যু হয় প্রেমিকের।

নিহত সাইফুল নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার ধনুয়া গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে। তার প্রেমিকা নিতু আক্তার (১৮) সুনামগঞ্জের মেয়ে। তারা জেলার কালীগঞ্জে একটি কোম্পানিতে চাকরি করতেন।

রেলওয়ে পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে ঘোড়াশাল ফ্লাগ রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় ঘুরতে আসেন তারা। প্রায় দেড় ঘণ্টা তারা বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বেড়ান। কিশোরগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী এগারসিন্দুর এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিকেল ৪টার দিকে ঘোড়াশাল ফ্লাগ রেলওয়ে স্টেশন অতিক্রম করার সময় তারা দক্ষিণ পাশের রেললাইনে বসে ছিলেন। এ সময় তাদের মাঝে মনোমালিন্য হলে নিতু ট্রেনের সামনে গিয়ে দাঁড়ায়। এমন পরিস্থিতিতে সাইফুল তাকে বাঁচাতে গিয়ে নিজেই ট্রেনে কাটা পড়ে। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

গুরুতর অবস্থায় নিতুকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া হয়।

নরসিংদী রেলওয়ে ফাঁড়ির উপপরিদর্শক ইমায়েদুল জাহিদী বলেন, ট্রেনে কাটা পড়ে মারা যাওয়ার খবর পেয়ে আমরা মরদেহ উদ্ধার করে রেলওয়ে ফাঁড়িতে নিয়ে এসেছি। আহত নিতু ঘটনার পর থেকে মানসিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছে। তাকে তার ফ্যাক্টরির লোকদের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সে সুস্থ হলে ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button