স্বামীর দেওয়া আগুনে গৃহবধূর মৃত্যু

গাজীপুর মহানগরীতে স্বামী স্বাধীন আলীর দেওয়া আগুনে পুড়ে হাসপাতালে ১১ দিন যন্ত্রণা সহ্য করার পর মৃত্যু হয়েছে মর্জিনা নামে এক গৃহবধূর। গতকাল বুধবার রাতে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মর্জিনা নামে ওই গৃহবধূ।

এর আগে গত ৭ ফেব্রুয়ারি মহানগরীর কোনাবাড়ি ইউনিয়নে দাম্পত্য কলহের জেরে স্বাধীন আলী তার স্ত্রীর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন। অগ্নিদগ্ধ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মর্জিনা।

নিহত মর্জিনা বেগম টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার থানার ইয়াসিন গ্রামের বাদশা মিয়ার মেয়ে এবং সিরাজগঞ্জ জেলা সদরের জয়নগর এলাকার স্বাধীন আলীর স্ত্রী।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্বাধীন আলীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে নিহতের ছেলে মনিরুল ইসলাম বাদী হয়ে কোনাবাড়ি থানায় মামলা দায়ের করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোনাবাড়ি থানার ওসি (তদন্ত) মো. মালেক খসরু খান। তিনি বলেন, ‘গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ির সেলিম নগর এলাকার মমতাজের বাড়িতে ভাড়া বাসায় সপরিবারে থাকেন স্বাধীন। দাম্পত্য কলহের জেরে গত ৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে ভুক্তভোগী মর্জিনার পরনের কাপড়ে আগুন ধরিয়ে দেন স্বাধীন আলী। প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে নিয়ে ভর্তি করা হয় মর্জিনাকে। ওই হাসপাতালে ১১ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর গতকাল বুধবার রাতে মারা যান মর্জিনা।’

ওসি বলেন, ‘এ ঘটনায় আগেই পুলিশ অভিযুক্ত স্বাধীন আলীকে গ্রেপ্তার করেছে। এ ব্যাপারে নিহতের ছেলে মনিরুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।’

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button