গাজীপুরে দাম্পত্য কলহের জেরে স্ত্রীর শরীরে আগুন, স্বামী পলাতক!

গাজীপুরে দাম্পত্য কলহের জেরে মর্জিনা বেগম (৪০) নামে এক গৃহবধূর শরীরে তার স্বামী অগ্নিসংযোগ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দগ্ধ ওই গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আগুনে মর্জিনা বেগমের শরীরের ৪০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ‘গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কোনাবাড়ী থানার সেলিমনগর এলাকার মমতাজের ভাড়া বাসায় স্বপরিবারে ভাড়া তিনি। তিনি টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার এলাসিন গ্রামের বাদশা মিয়ার মেয়ে। ভুক্তভোগীর স্বামী স্বাধীন স্থানীয় কেয়া স্পিনিং মিলস লিমিটেডের নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে চাকুরি করেন। বেশ কিছুদিন ধরে স্বামী ও স্ত্রীর মাঝে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল’।

কলহের জের ধরে রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মর্জিনার পরিহিত কাপড়ে গ্যাস লাইটার দিয়ে অগ্নিসংযোগ করে পালিয়ে যায় তার স্বামী স্বাধীন। এতে মারাত্মক দগ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন মর্জিনা। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে মর্জিনাকে উদ্ধার করে কোনাবাড়ী এলাকার শরিফ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।
পরে সন্ধ্যায় সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে নেওয়া হয়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) কোনাবাড়ী থানার ওসি আবু সিদ্দিক জানান, ‘গৃহবধূর গায়ে আগুন দেয়ার খবর হাসপাতাল থেকে জানতে পেরেছি। ঘটনা জানার জন্য একজন অফিসারকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে গৃহবধূর পক্ষ থেকে এখনও (সোমবার দুপুর পর্যন্ত) কেউ থানায় অভিযোগ করে নি।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button