‘পোশাকের উপর দিয়ে মেয়েদের গায়ে হাত দিলে তা যৌন হেনস্থা নয়’

যৌন নির্যাতন হিসেবে গণ্য হতে হলে ‘যৌন উদ্দেশ্যে ত্বকের সঙ্গে ত্বকের সংস্পর্শ’ হওয়া প্রয়োজন বলে রায় দিয়েছে মুম্বাই হাইকোর্ট। ভারতের পাকসো আইনের এ রায় ঘোষণার পর প্রতিবাদে উত্তাল গোটা বলিউড। তাপসী পান্নু থেকে শুরু করে আলিয়া ভাটের মা সোনি রাজদান বিষয়টি নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন।

২০১৬ সালে এক শিশুর যৌন হেনস্থার মামলায় ‘পোশাকের উপর দিয়ে শরীরের অঙ্গ স্পর্শ করলে তা যৌন নির্যাতন হিসাবে গণ্য হবে না’ বলে রায় দেয় মুম্বাই হাইকোর্ট। যেহেতু শিশুটির জামাকাপড়ের ভেতর হাত গলিয়ে তার শরীরে কোথাও স্পর্শ করা হয়নি, তাই এটিকে যৌন নির্যাতন বলা যাবে না। গত রোববার এ রায় ঘোষণা করেন মুম্বাই হাইকোর্টের নাগপুর বেঞ্চের মহিলা বিচারপতি পুষ্প গানেদিওয়ালা।

ওই মামলার এজাহারে বলা হয়, অভিযুক্ত ব্যক্তি শিশুকে পেয়ারার লোভ দেখিয়ে ঘরে নিয়ে গিয়ে শিশুকন্যাটির বুকে হাত দেয়। ৩৯ বছরের ওই অভিযুক্তকে পাকসো আইনের ৮ নম্বর ধারার ৩ বছরের সাজা দিয়েছিল নিম্ন আদালত। পরে হাইকোর্টে পালটা আবেদন জানান তিনি। পরে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ এবং ৩৪২ নম্বর ধারা অনুযায়ী নিম্ন আদালতের সাজাপ্রাপ্তের সাজার মেয়াদ কমে দাঁড়ায় ১ বছর।

 

এমন আরো সংবাদ

Check Also
Close
Back to top button