হাইকোর্টের সামনে পড়ে ছিল রক্তাক্ত মরদেহ, সকালে মিলল পরিচয়

রাজধানীর শাহবাগ থানা এলাকার হাইকোর্টের সামনের রাস্তায় ছুরিকাঘাতে এক ব্যক্তিকে হত্যা করা হয়েছে। রক্তাক্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে একটি ভ্যানে করে হাসপাতালে পাঠালে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে গতকাল শনিবার রাতে মরদেহের কোন পরিচয় পাওয়া যায়নি। আজ রোববার সকালে নিহত ওই ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে। তার নাম- মো. হামিদুল ইসলাম। বয়স ৫৮ বছর।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে হামিদুল ইসলামকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে এক ভ্যানচালক ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা ভ্যানচালক মো. আব্দুর রহমান জানান, রাতে সোয়া ৯টার দিকে কাজ শেষ করে হাইকোর্টের সামনের রাস্তা দিয়ে ভ্যান নিয়ে বাসায় যাচ্ছিলেন তিনি। এ সময় রাস্তায় লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে তার ভ্যানে উঠিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।

তিনি আরও জানান, ভ্যানে শুধু ওই মৃত ব্যক্তিকেই তুলে দিয়েছে পথচারীরা। কেউই তার সঙ্গে হাসপাতালে আসেননি।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী পরিদর্শক (এএসআই) আব্দুল খান জানান, নিহতের শরীরে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

শাহবাগ থানায় ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মো. শহীদ জানান, সকালে নিহতের পরিচয় জানা গেছে। তার নাম হামিদুল ইসলাম। ছুরিকাঘাতের ফলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এই ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) মো. মামুন অর রশিদ জানান, এটি একটি হত্যাকাণ্ড। নিহতের শরীরে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বিষয়টি নিয়ে কাজ করা হচ্ছে।

 

এমন আরো সংবাদ

Back to top button